1. Exness News
  2. Forex Education
  3. ফরেক্স কি? ফরেক্স ,স্টক এক্সচেঞ্জ এবং অন্যান্য মার্কেটের পার্থক্য
Forex Education

ফরেক্স কি? ফরেক্স ,স্টক এক্সচেঞ্জ এবং অন্যান্য মার্কেটের পার্থক্য

June 01, 2018
BY Emma Richards

বর্তমানে বিশ্বের অর্থনৈতিক বাজারে ফরেক্স একটি উজ্জল নক্ষত্র হিসেবে পরিচিত। তিন যুগেরও বেশি সময় ধরে ফরেক্স মার্কেট সফলতার সাথে এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব-বাজারে। ফরেক্স এতো বড় একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও আমাদের দেশের খুম কম সংখ্যক মানুষেরই এর সম্পর্কে ভাল ধারণা আছে। এদেশে যারা ফরেক্স ট্রেডিং এর সাথে যুক্ত আছেন তার মধ্যে অধিকাংশ মানুষই দেখা যায় সফলতার মুখ দেখতে পাচ্ছে না। এর জন্য অনেক কারণ থাকলেও প্রধান কারণ হিসেবে ধরা যায় অজ্ঞতাকেই। এজন্য আমাদের আগে জানতে হবে ফরেক্স কি এবং কিভাবে এটি পরিচালনা হয়।

ফরেক্সঃ  ফরেক্স(Forex) শব্দটি এসেছে FOReign EXchange শব্দদ্বয় থেকে। যার অর্থ দাড়ায় বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়। আন্তর্জাতিক বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় বাজারকেই মূলত ফরেক্স হিসেবে বিবেচিত করা হয়। একটি দেশের মুদ্রার বিনিময়ে অন্য দেশের মুদ্রার আদান-প্রদান করাই হচ্ছে ফরেক্স এর প্রধান কাজ। বৈদেশিক মুদ্রার মূল্যের পরিবর্তন সাধিত হয় মূলত সরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে। এছাড়া এর পাশাপাশি কিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানও পণ্য এবং সেবা রপ্তানির মাধ্যমে অর্জিত মুদ্রা দেশিয় মুদ্রায় পরিবর্তন করে। যদিও এর পরিমান বৈদেশিক মুদ্রাবাজার লেনদেনের মাত্র ৫%। বাকি ৯৫% লেনদেন হয় ফরেক্স ব্রোকারদের মাধ্যমে যারা বৈদেশিক মুদ্রা আদান-প্রদান করে কিছু মুনাফা আদায় করে। আপনি ফরেক্স এর মাধ্যমে খুব সহজেই একটি মুদ্রার বিনিময়ে অন্য মুদ্রা ক্রয় অথবা বিক্রয় করতে পারবেন। এই মুদ্রার বাজারে বিশ্বের সব উল্লেখযোগ্য অর্থনৈতিক মুদ্রা সংযুক্ত আছে। এইসব মুদ্রার মূল্য প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হতে থাকে এবং এই মুদ্রার মান পরিবর্তনকেই কেন্দ্র করে মূলত ফরেক্স ট্রেডিং ব্যবসা চলছে। আপনি চাইলে খুব সহজেই এই পরিবর্তনশীল মুদ্রার মানকে ব্যবহার করে লাভবান হতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আজকের দিনে মার্কিন ডলারের এর মান ধরে নিলাম ১০০ টাকা এবং ইউরোর মান ৮০ টাকা। আপনি আজকে ১০০ মার্কিন ডলার দিয়ে ৮০ ইউরো ক্রয় করলেন। পরবর্তীতে ইউরোর দাম বেড়ে গেলে আপনি ওই ৮০ ইউরো বিক্রয় করে ১২০ মার্কিন ডলার পেতে পারবেন। এভাবেই আপনি ফরেক্সে মুদ্রার পরিবর্তিত মান আদান প্রদান করে আয় করতে পারবেন অতি সহজে। ফরেক্স ব্যবসার অন্যতম প্রধান সুবিধা হল কোন মুদ্রা শক্তিশালী হোক অথবা দুর্বল হোক আমরা দুই ক্ষেত্রেই এর ব্যবহার করে আয় করতে পারি, যা অন্য কোন ব্যবসায় করা সম্ভব না।

ফরেক্স বনাম স্টক এক্সচেঞ্জ এবং অন্যান্যঃ

ফরেক্স অন্যান্য প্রথাগত অর্থনৈতিক মার্কেট এর তুলনায় অনেক বেশি সুবিধা প্রদান করে থাকে এবং এজন্যই বর্তমানে এর দৈনিক আর্থিক লেনদেন ৬ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি। যেখানে বর্তমান বাজার পরিপ্রেক্ষিতে ফরেক্স মার্কেটের একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে আমেরিকান স্টক এক্সচেঞ্জ। এর মধ্যে প্রতিদিন প্রায় ৩০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লেনদেন হয় যা ফরেক্সের তুলনায় অনেক কম। তাহলে কি কারণে মানুষ এতো বেশি পরিমাণে ফরেক্সে নিজের অর্থ বিনিয়োগ করছে?  নিন্মে কি কারণে ফরেক্স অন্যান্য মার্কেটের চেয়ে উন্নত এবং যুগোপযোগী তা দেখানো হলোঃ

১। সহজলভ্যতাঃ  ফরেক্স অনেক সহজলভ্য। ইন্টারনেটের মাধ্যমে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তের গ্রাহকের সাথে আর্থিক লেনদেন করা যায়। এছাড়াও ফরেক্স ব্রোকারদের মাধ্যমে খুব সহজেই এই ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত হওয়া যায়। ফরেক্স একটি আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ব্যাবসা মাধ্যম, এজন্য যেকোনো দেশের নাগরিক পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে ফরেক্স ব্যবসা করতে পারে এবং এর জন্য শুধু প্রয়োজন ইন্টারনেট সংযোগ, ভাল ব্রোকার এবং কপিউটার/ল্যাপটপ। আজকাল গ্রাহকদের সুবিধার জন্য মোবাইলের মাধমেও ফরেক্স ট্রেড করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

২। স্বীদ্ধান্ত গ্রহনে সুবিধাঃ  অবকাঠামোগত দিক দিয়ে ফরেক্স মার্কেট এবং স্টক মার্কেট অনেকটাই একে অপরের সদৃশ। কিন্তু আসল পার্থক্য দেখা যায় যখন একজন ট্রেডার তার পছন্দ নির্ধারণ করতে যায়। স্টক এক্সচেঞ্জে যেখানে হাজারেরও বেশি অপশন আছে ট্রেড করার যা আপনাকে অনেক সহজেই বিভ্রান্ত করতে পারে, সেখানে ফরেক্স সম্পূর্ণ বৈদেশিক মুদ্রার পরিধিকে অনেক ছোট রুপে আমাদের সামনে উপস্থাপন করছে মুদ্রার জোরার (currency pair) মাধ্যমে। এতে আমাদের ট্রেডিং জটিলতা কমে যাচ্ছে এবং অনেক সহজেই আমরা আমাদের স্বীদ্ধান্ত নিতে পারি। যা আমরা অন্যান্য ব্যবসায় পারি না।

 

৩। ২৪ ঘন্টা মার্কেটঃ  আমাদের অন্যান্য প্রথাগত মার্কেটের মতো ফরেক্সে কোনো নির্ধারিত সময় নেই ট্রেড করার। সপ্তাহের সোমবার থেকে শুক্রবার দিনরাত ২৪ ঘন্টা ফরেক্স মার্কেট খোলা থাকে। এজন্য ট্রেডার তার সুবিধামতো যেকোনো সময়েই ট্রেড করতে পারে।

 

৪। প্রবেশযোগ্যতাঃ  ফরেক্স এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে আরেকটি উল্লেখযোগ্য পার্থক্য হলো আপনি অপেক্ষাকৃত কম পরিমাণের মূলধন নিয়ে এই ব্যবসার সাথে সংযুক্ত হতে পারবেন এবং ট্রেডিং করতে পারবেন। যেখানে স্টক মার্কেটে আপনার নূন্যতম বিনিয়োগ ১০ হাজার মার্কিন ডলার, সেখানে আপনি মাত্র ১০০ মার্কিন ডলারের মাধ্যমে ফরেক্সে ট্রেড করতে পারবেন।

 

৫। লেভারেজঃ  ট্রেডিং এর জগতে একটা কথা প্রচলিত আছে, আপনি যতো বড় মূলধনের মালিক, আপনি ততো বড় লটের (lot) এর সাথে ট্রেড করতে পারবেন। ফরেক্সে আপনি যাতে স্বল্প বিনিয়োগে অনেক বেশি পরিমাণে লাভবান হতে পারেন সেজন্য ট্রেডারদের উচ্চহারে লেভারেজ সুবিধা প্রদান করা হয়। অন্যান্য স্টক ব্রোকাররা যেখানে মাত্র ১:২ লেভারেজ প্রদান করে সেখানে ফরেক্সে লেভারেজ অফার শুরু হই ১:৫০ থেকে। কিছু কিছু ব্রোকার ১:৫০০ থেকে ১:২০০০ পর্যন্ত লেভারেজের সুবিধা দিয়ে থাকে।

 

৬। স্বল্প খরচে লেনেদেনের সুবিধাঃ  ফরেক্সে অনেক সহজেই এবং স্বল্প মূল্যে লেনদেন করা সম্ভব। বেশিরভাগ ফরেক্স ব্রোকার তাদের গ্রাহকদের ট্রেডিং টুলস এবং মার্কেট সম্পৃক্ত তথ্য প্রদান করে থাকে বিনামূল্যে। এছাড়াও তারা তাদের সার্ভিস ফি স্প্রেড (spread) অথবা কমিশনের মাধ্যমে নিয়ে থাকে যা স্টক এক্সচেঞ্জ অথবা অন্যান্য ব্যবসায়ের তুলনায় অনেক কম। স্টক এক্সচেঞ্জে প্রতি লেনদেনে খরচ হই ৭.৯৫-২৯.৯৫ মার্কিন ডলার। অন্যদিকে ফরেক্সে লটের পরিমাণ এবং অন্যান্য বিষয় পর্যবেক্ষণ করে ক্ষেত্রবিশেষে প্রতি ট্রেডে খরচ হয় সর্বোচ্চ ১ মার্কিন ডলারেরও কম।

 

৭। ডেমো একাউন্ট সুবিধাঃ  কথায় আছে অনুশীলনের মাধ্যমে একজন মানুষ নিখুঁত হতে পারে। এজন্য ফরেক্স মার্কেট অনুশীলনের একটি সুন্দর সুযোগ করে দিয়েছে ডেমো ট্রেডিং একাউন্ট এর মাধ্যমে। এই একাউন্টে বিনা খরচে ফরেক্স মার্কেটে ট্রেডিং করা যায় এবং একজন ট্রেডার তার ভুলত্রুটি সংশোধন করতে পারে। একজন ট্রেডার এই আকাউন্টে যতোদিন খুশি ট্রেড করতে পারবে এবং এর মধ্যে কোনো সীমাবদ্ধতা প্রযোজ্য নেই। এই সুবিধাটি অন্য কোনো আর্থিক বাজারের মধ্যে পাওয়া যায় না।

alternate text for image
আপনার ট্রেডিং দক্ষতায় আত্মবিশ্বাসী? একটি অ্যাকাউন্ট খুলুন এবং Exness দিয়ে ট্রেড শুরু করুন
OPEN A DEMO ACCOUNT