1. Exness News
  2. Forex Education
  3. সঠিক ফরেক্স ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন?
Forex Education

সঠিক ফরেক্স ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন?

June 01, 2018
BY Emma Richards

যারা ফরেক্স মার্কেটের সাথে কোনো না কোনোভাবে জড়িত তারা সবাই ব্রোকার নামটির সাথে সুপরিচিত। ফরেক্সের সাথে যারাই জড়িত থাকে সবার কাছেই এই বিষয়টি জানা আছে যে ফরেক্সে ভালভাবে ট্রেড করতে চাইলে আপনার অবশ্যই একটি ভাল ব্রোকারের প্রয়োজন, যেটি আপনাকে সকল ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়ে সাহায্য করবে।  দিন দিন ফরেক্স মার্কেট প্রচুর পরিমাণে ব্রোকার আসছে। তবে দুর্ভাগ্যবশত সব ব্রোকার আপনাকে আপনার প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ও সুযোগ-সুবিধা দিতে পারে না। এজন্য ভাল ব্রোকার চিনে ইনভেস্ট খুবই জরুরি। তবে তার আগে আমাদের জানতে হবে ব্রোকার কি এবং ভাল ব্রোকার কিভাবে নির্ণয় করা যায়।

ব্রোকার কিঃ

ফরেক্স মার্কেটকে আমরা এখন যেভাবে দেখছি তেমনটা ছিল কয়েকবছর আগেও। আগে বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেনের অনুমতি ছিল শুধু ব্যাংক, কিছু সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং বড় বড় শিল্পপ্রতিষ্ঠানের। সাধারণ মানুষ ফরেক্স সম্পর্কে অবগত থাকলেও তারা এই ব্যবসায়ে কোন হস্তক্ষেপ করতে পারতো না। ইলেক্ট্রিনিক ট্রেডিং এর যুগ শুরু হওয়ার সাথে সাথে ব্রোকারের আবির্ভাব হয় ফরেক্স মার্কেটে। ব্রোকার হচ্ছে একটি অর্থ বিনিয়োগকারি প্রতিষ্ঠান যে সাধারণ মানুষকে তাদের প্লাটফর্ম প্রদান করে থাকে এবং সাথে কিছু ট্রেডিং সম্পর্কিত সুযোগ-সুবিধাও। সাধারণ মানুষ যেখানে সরাসরি ফরেক্সে ট্রেড করতে পারে না তারা খুব সহজেই ব্রোকার কোম্পানিতে একাউন্ট খুলে কারেন্সি মার্কেটে লেনদেন করতে পারেন। ব্রোকার সাধারণত স্প্রেড এর মাধ্যমে কমিশন আয় করে থাকে। বর্তমানে ফরেক্স মার্কেটে দুই ধরনে ব্রোকার দেখা যায়। যেমনঃ  

১। ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার (Market Maker Broker)

২। নো-ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার (No Dealing Desk Broker)

ভাল ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করা যায়ঃ

কেউ যদি কোনো প্রকার টেকনিক্যাল জটিলতা এড়িয়ে সহজে ট্রেড করতে চান তাহলে ভাল ব্রোকার নির্বাচন ছাড়া আপনার কোনো গতি নেই। কেননা ট্রেডারের সফলতা এবং ব্যর্থতার সাথে একটি ব্রোকারের ইতিবাচক এবং নেতিবাচক ভুমিকা থেকে থাকে, সেটা প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষ দুইভাবেই। তাই ব্রোকার নির্বাচনে আমাদের বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া উচিত এবং কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলা উচিত। নিন্মে কিভাবে আমরা ভাল ব্রোকার চেনা যায় তা আলোচনা করবো।

রেগুলেশনঃ ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে সবার আগে আমাদের মাথায় রাখা উচিত নিরাপত্তার কথা। কারণ কোনো ট্রেডারই চাইবে না তার অর্থ এমন কোনো প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করতে যার কোনো প্রাতিষ্ঠানিক ভিত্তি নেই। ব্রোকারের বিশ্বাসযোগ্যতা যাচাই করার জন্য বিভিন্ন দেশে রেগুলেশন এজেন্সি থাকে। সাধারণত সব ব্রোকারেরই Cysec এর রেগুলেশন থাকে। কিন্তু পারতপক্ষে এই রেগুলেশনের তেমন নির্ভরযোগ্যতা নেই। NFA, FCA, CFIC, ASIC  ইত্যাদি রেগুলেশন থাকলে বুঝতে হবে ব্রোকারটি ভাল এবং বিশ্বাসযোগ্য। ব্রোকার যদি আমেরিকান হয় তাহলে NFA অথবা CFIC রেগুলেশন হবে, ব্রিটিশ ব্রোকার হলে FCA অথবা PRA রেগুলেশন হবে, অস্ট্রেলিয়ান ব্রোকার হলে ASIC রেগুলেশন হবে, ক্যানাডিয়ান ব্রোকার হলে AMF রেগুলেশন।

একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানাঃ একেক ধরণের ফরেক্স ব্রোকার একেক রকম একাউন্ট সিস্টেম ও সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে থাকে। একজন ট্রেডারকে অবশ্যই যা যাচাই বাছাই করে দেখা উচিত এবং তারপর নির্বাচন করা উচিত। যার মধ্যে রয়েছেঃ

লেভারেজঃ লেভারেজ হচ্ছে একপ্রকার লোন যা আপনার ব্রোকার আপনাকে প্রদান করে থাকে।এই লোনের মাধ্যমে আপনি আপনার আসল বিনিয়োগের চেয়ে বেশি ট্রেড করার সুবিধা পেতে পারেন। যেমনঃ আপনার বিনিয়োগকৄত মূলধনের পরিমান ১০০ ডলার এবং আপনার ব্রোকার আপনাকে ১:৪০০ লেভারেজ দিচ্ছে। এর মানে হচ্ছে আপনার ব্রোকার আপনাকে ট্রেডিং এর সময় ৪০০ গুন পর্যন্ত লোন দিবে। যার মানে দাড়াই, আপনি সর্বোচ্চ ১০০ ডলারে মুল্ধন নিয়ে ১০০x৪০০= ৪০০০০ ডলার মূল্যের ট্রেড করতে পারবেন। সব ব্রোকার এক ধরণের লেভারেজ প্রদান করে না। এজন্য আপনি অবশ্যই ব্রোকার নির্বাচনের সময় আপনার পছন্দের ব্রোকার কি পরিমান লেভারেজ দিচ্ছে যা যাচাই করবেন।

স্প্রেডঃ মূলত ট্রেডিং এর সময় বিড প্রাইস এবং আস্ক প্রাইসের পার্থক্যকেই বলা হয় স্প্রেড। সহজ ভাষাই বলতে গেলে ব্রোকার তার সার্ভিস প্রদানের বিনিময়ে ট্রেডার থেকে প্রতিটি ট্রেড থেকে কিছু কমিশন কেটে রাখে যেটা তার মূল আয়ের উৎস। ব্রোকার নির্বাচনের সময় যদি আপনি স্বল্প স্প্রেড কাটা ব্রোকার নির্ধারণ করেন তাহলে আপনি স্বল্প খরচে ট্রেড করতে পারবেন সবসময়। তবে ভাল ব্রোকারের জন্য বেশি স্প্রেড দিতে হলেও তা মানানসই বলা যায়।

ডিপোজিট আর উইড্রো সিস্টেম দেখাঃ ফরেক্স মার্কেটে এরকম অনেক ব্রোকার আছে যারা আপনাকে অর্থ বিনিয়োগের জন্য অনেক ধরনে ডিপোজিট এবং উইড্রো অফার প্রদান করার লোভনীয় অফার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিবে কিন্তু যখন উইড্রো কররে যাবেন সেই সময় আপানার অর্থ আপনাকে দিতে চাইবে না। এজন্য এই বিপদ এড়ানোর জন্য আপনি খুব সহজেই ইন্টারনেটে অথবা বিভিন্ন সামাজিক সাইটে ব্রোকারে কোনো স্ক্যাম আছে কিনা তা যাচাই করে নেওয়া ভাল। এক্ষেত্রে পাবলিক রিভিউ কিংবা ব্যবহারকারী ট্রেডারদের রিভিউ সবচেয়ে কার্যকরী উপায় সঠিক ব্রোকার চিনার।

ডেমো একাউন্টঃ ডেমো একাউন্ট হচ্ছে একধরনের ফ্রি ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম যা মূলত প্রতিটি ব্রোকারই দিয়ে থাকে। আপনি চাইলেই ব্রোকারের একাউন্টে কোনো অর্থ বিনিয়োগ না করে তার সিস্টেম যাচাই করতে পারেন বিনামূল্যে এই ডেমো একাউন্টের মাধ্যমে। ডেমো একাউন্টে ট্রেড করে আপনি ব্রোকারে এক্সিকিউশন (execution), স্প্রেড, লেভারেজ মোট কথা সার্বিক পরিস্থিতির পর্যালোচনা করতে পারবেন। ডেমো বা ট্রাইল একাউন্ট খুলতে – এখানে ক্লিক করুন

একাউন্ট ধরনঃ একটি ব্রোকার কোম্পানিতে অনেক ধরণের একাউন্টের ধরন থাকে, যেমনঃ ইসিএন একাউন্ট (ECN account), ফিক্সড একাউন্ট (fixed account), জিড়ো স্প্রেড একাউন্ট (zero spread account), সুয়াপ ফ্রি একাউন্ট (swap free account)। ব্রোকার নির্বাচনের জন্য আপনার পছন্দের সিস্টেম আছে কিনা তা দেখে নেওয়া ভাল।

আজই মানানসই ট্রেডিং একাউন্টে  ফরেক্স ট্রেড শুরু করতে রেজিস্টার করুন –  এখানে ক্লিক করুন

কারেন্সি পেয়ারঃ ফরেক্স মার্কেট ট্রেড করা হয় পেয়ারের মাধ্যমে। যেমনঃ USD/EUR, USD/JPY, GBP/USD ইত্যাদি। USD/EUR দিয়ে বুঝাই মার্কিন ডলার এবং ইউরোপিয়ান ইউরো কেনা বেচা করতে পারবেন এই পেয়ারের মাধ্যমে। ব্রোকার নির্বাচনের জন্য আপনার ভাল করে দেখে নেওয়া উচিত আপনি যে ব্রোকার পছন্দ করছেন সেই ব্রোকার আপনাকে সব ধরণের পেয়ার দিচ্ছে কিনা।

গ্রাহক সেবা কেন্দ্র বা কাস্টোমার কেয়ার সার্ভিসঃ  ফরেক্স যেহেতু ২৪ ঘন্টার মার্কেট এখানে স্বাভাবিক নিয়মে ২৪ ঘন্টায় ট্রেড চলমান থাকবে। আর একজন ভাল ব্রোকার এজন্য ২৪ ঘন্টা গ্রাহক সেবা দিতে বাধ্য। যাতে আপনি চাইলেই এই সেবা যেকোনো সময় পেতে পারেন। এছাড়াও গ্রাহক সেবার মানও একটি বিবেচনার বিষয়। ২৪ ঘন্টায় নিজ ভাষায় গ্রাহক সেবা পেতে আপনি যোগাযোগ করতে – এখানে ক্লিক করুন

ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মঃ ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে ফরেক্স মার্কেট ট্রেড করার একমাত্র মাধ্যম যা ব্রোকার প্রদান করে থাকে। এই প্ল্যাটফর্মেই একজন ট্রেডার তার ট্রেড করবেন। এজন্য ব্রোকার কিধরণের প্ল্যাটফর্ম দিচ্ছে তার যাচাই বাছাই করাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মার্কেটে অনেক ধরনে ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। যেমনঃ এমটি৪ (MT4), এমটি৫ (MT5), সি-ট্রেডার (cTrader), ট্রেড-স্টেশন (TradeStation) ইত্যাদি। ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে আপনার পছন্দের প্ল্যাটফর্ম ব্রোকার দিচ্ছে কিনা তাও যাচাই করে নেওয়া উচিৎ।

বাজার খ্যাতিঃ ব্রোকার নির্ধারণের জন্য তার বাজার খ্যাতিও যাচাই করে নেওয়া ভাল। মার্কেটে ব্রোকারের নামে কোনো স্ক্যাম আছে কিনা, ডিপোজিট-উইড্রো ঠিকঠাক মতো দেয় কিনা, এছাড়াও অন্যান্য কোনো ধরনে বাজে খ্যাতি আছে কিনা তা দেখলে আপনি সহজেই ব্রোকার নির্বাচন করতে পারবেন। বিগত ১০ বছর ধরে বিশ্বমানের সেবা, ট্রেডারদের আস্থা ও খ্যাতি সম্পন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে ট্রেড করতে – এখানে ক্লিক করুন

পরিশেষে বলা যায়, আপনি যদি একটি ভাল ব্রোকারের সাথে যুক্ত হতে পারেন আপনার ট্রেডিং জীবন হয়ে উঠবে আনন্দময় এবং ঝামেলাহীন। এজন্য ব্রোকার নির্বাচন অনেক বুঝে শুনে করাটাই শ্রেয়। যাতে আপনি ট্রেডিং এর সময় আপানার এনালাইসিস এবং স্ট্রেটেজির উপর মননিবেশ করতে পারেন সহজেই।

alternate text for image
আপনার ট্রেডিং দক্ষতায় আত্মবিশ্বাসী? একটি অ্যাকাউন্ট খুলুন এবং Exness দিয়ে ট্রেড শুরু করুন
OPEN A DEMO ACCOUNT